অসমাপ্ত ভালোবাসার গল্প – Bangla Sad Love Story

অসমাপ্ত ভালোবাসার গল্প bangla sad love story

অসমাপ্ত ভালোবাসার গল্প নামক এই Bangla Sad Love Story টা তে আপনারা এমন একটা অসমাপ্ত প্রেমের কাহিনী পাবেন যা পড়লে হয়তো চোখের পানি ধরে রাখেত পারবেন না।

অসমাপ্ত ভালোবাসার গল্প – Bangla Sad Love Story

অসমাপ্ত ভালোবাসার গল্প bangla sad love story
অসমাপ্ত ভালোবাসার গল্প bangla sad love story

মিম সেই কখন থেকে অপেক্ষা করে বসে আছে ফাহিমের জন্য। ফাহিম এখনো আসছেনা। ফাহিম কি বুঝে না যে মিম ওর সাথে কথা না বলে থাকতে পারেনা। মিম তো কিছু বলতে ও পারছেনা ফাহিমকে। আর বলবেই বা কি! ফাহিম যদি জানে যে মিম ওকে ভালোবাসে তাহলে হয়তো আর কথাই বলবে না কোনোদিন। হয়তো ফাহিম ওকে শুধু বন্ধু ই ভাবে আর কিছুনা। ভাববেই বা কেনো! মিম তো আর দেখতে সুন্দরী না। আর ফাহিমের ইচ্ছা ওর বিয়ে হবে অনেক সুন্দরী একটা মেয়ের সাথে। তাই মিম আস্তে আস্তে ফাহিমের কাছ থেকে দূরে সরার সিদ্ধান্ত নিলো। ……..

এবার বলি কে মিম আর কে ফাহিম। মিম হচ্ছে মা বাবার একমাত্র মেয়ে। অনেক আদরে মানুষ হয়েছে। ফাহিম ও বাবা মার একমাত্র সন্তান। তাই ওর আদর টা একটু বেশী ই পায়। মিম আর ফাহিমের পরিচয় ফেসবুকে। কেউ কাউকে কখনো দেখেওনি কোনোদিন। ওদের বন্ধুত্ব অনেক গাঢ়। কিন্তু মিম যে ফাহিমকে বন্ধুর থেকেও বেশী কিছু ভাবে।

এতক্ষণ পড়ে ফাহিম ফেসবুকে এলো।
ফাহিম : কি করো?
মিম : কিছু না।
ফাহিম : নেট ছিলো না। তাই আসতে পারি নাই এতক্ষণ। রাগ করেছো?
মিম : না।
ফাহিম : সকালে কি খাইসো?
মিম :কিছু না।
ফাহিম : এটা কেমন কথা!! কয়টা বাজে!! খাও নাই কেন এখনো নো??
মিম :এমনিই। ভালো লাগছে না তাই খাই নি।
ফাহিম : কি হয়েছে আমার বান্ধবীর?? হুমমমম?? মন খারাপ কেন??
মিম :কই মন খারাপ! মন খারাপ না।
ফাহিম :আমাকে লুকাচ্ছো কিছু?? কয়দিন ধরেই দেখছি কেমন যেনো হয়ে যাচ্ছো। কি হইছে মিম?? আমাকে বলো।
মিম :কিছু না ফাহিম।
ফাহিম :তুমি বলবা??
মিম :কি বলবো?
ফাহিম :আমি কিন্তু চলে যাবো না বললে।
মিম :বললেও তুমি চলে যাবে। রাগে ঘৃণায় আর কথা বলতে চাইবে না কখনো আমার সাথে।
ফাহিম :হতেই পারেনা। কি হইছে বলো।
মিম : আমি তোমাকে ভালবাসি ফাহিম। বিশ্বাস করো আমি ইচ্ছা করে করিনি কিভাবে যেন হয়ে গেছে।
ফাহিম : নো রিপ্লাই
মিম :তুমি ভেবোনা ফাহিম, আমি জানি আমি তোমার যোগ্য না। তাই আমি নিজেকে কন্ট্রোল করে নিবো।
ফাহিম : নো রিপ্লাই
মিম : চলে যাবো তোমার লাইফ থেকে। ভেবোনা।
ফাহিম :নো রিপ্লাই।
মিম : ফাহিম?? আছো?? জানি অনেক রাগ করেছো। হয়তো আর কখনো কথা বলবা না
ফাহিম : মিম আমার মাথা ঘোরাচ্ছে। কিছু মনে করো না। প্লিজ
মিম : (মন খারাপ করে) আইচ্ছা
কিছুক্ষণ পরে ….

ফাহিম : আছো?
মিম :হুম
ফাহিম : কি করো?
মিম :বসে আছি।
ফাহিম :বসেবসে কি করো?
মিম :কিছু না।
ফাহিম :একটা কথা বলি?
মিম :বলো।
ফাহিম : আমি আমার আম্মু আব্বুর অমতে কিছু করবো না। আমরা এখন যেমন আছে তেমন ই থাকি?? যখন আমাদের দুই পরিবার মেনে নিবে তখন বিয়ে করে নিবো।
মিম : (অবাক হয়ে) আইচ্ছা।
ফাহিম : এবার একটু হাসি দিবা??
মিম :আসছে না
ফাহিম :তাহলে কাতুকুতু দেই?
মিম হিহিহি
ফাহিম : এইতো লক্ষী মেয়ে।

দুই বছর পর….
ফাহিম ও মিমের সম্পর্ক ওদের পরিবার মেনে নিয়েছে। কিছুদিন পরেই ওদের বিয়ে। সবাই অনেক উচ্ছ্বাসিত এই বিয়ে নিয়ে। শুধু মিমের মনেই আনন্দ নেই। এই দুই বছরে একদিন ও ফাহিম মিমকে ভালোবাসি কথাটা বলেনি। বরং মিমকে এটাও শুনতে হয়েছে যে ও সুন্দরী না ওকে নিয়ে কিভাবে সবার সামনে যাবে। সবাই ওকে দেখে কি বলবে!! যাইহোক সবাই এখন বিয়ের কেনাকাটা নিয়ে ব্যস্ত। কেনাকাটা করে বাড়ি ফেরার সময় হঠাৎই একটা ট্রাক এসে মিমকে থেঁতলে দিয়ে চলে যায় । সবাই যেন নিজেদের চোখকে বিশ্বাস করতে পারছেনা। তাড়াতাড়ি করে মিমকে নিয়ে হাসপাতালে যেতে লাগলো। রক্তে সারা শরীর ভরে গেছে! মিম ফাহিমের হাত ধরে কষ্ট করে বললো

মিম :আমি আর পারছিনা। অনেক কষ্ট হচ্ছে আমার।
ফাহিম : কিচ্ছু হবে না তোমার। আমি কিছুই হতে দিবো না।
মিম : ফাহিম একবার বলবে?? শুধু একবার?? বলবে ফাহিম??
ফাহিম : কি বলবো??
মিম : আমার জন্য দোয়া করো যেন পরেরবার জন্ম নিলে তোমার মনের মতো সুন্দরী হয়ে জন্মাই।
ফাহিম : (কাঁদতে কাঁদতে) কি বলছো এসব!!
মিম : (মুচকি হেসে) আমাকে মাফ করে দিও ….

কয়েক বছর পর….
আজকে সেই সর্বনাশা দিন। যেদিন ফাহিম তার জিবনের সবকিছু হারিয়েছিল। তার আচরণে কষ্ট পেয়ে মিম এইভাবে সুইসাইড করলো। ফাহিম চিৎকার করে বললো আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি মিম অনেক ভালোবাসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *