আশিক বানায়া আপনে ছবির নাইকার একি অবস্থা !!!

আশিক বানায়া আপনে ছবির নাইকার একি অবস্থা

আশিক বানায়া আপনে ছবির নাইকার একি অবস্থা হয়েছে এখন! আমাদের অনেক দর্শক হয়তো এখনকার ছবি দেখে আশিক বানায়া আপনে ছবিতে ইমরান হাশমির সাথে অভিনয় করা সেই হট নায়িকা তনুশ্রী দত্ত কে চিনতেই পারবেন না তাই আগের একটা ছবি ও সাথে দিতে হয়েছে।

আশিক বানায়া আপনে ছবির নাইকার একি অবস্থা !!!

আশিক বানায়া আপনে ছবির নাইকার একি অবস্থা
আশিক বানায়া আপনে ছবির নাইকার একি অবস্থা

সত্যি করে বলুন তো, এখকার ছবি দেখে কি বুঝতে পেরেছিলেন যে এই হচ্ছে সেই নায়িকা যেই নাইকার জন্য একসময় পাগল ছিলো কোটি তরুণ ছেলে।

যদিও ও তরুনদের পাগল করার মতো খোলামেলা ড্রেস পরতেন এই নায়িকা আর অভিনয়ের মধ্যেও ছিলো উষ্ণ ভাব। যাই হোক, এখনকার অবস্থা দেখে হয়তো কেউই পছন্দ করবে না এই নাইকাকে।

তনুশ্রী দত্তের বর্তমান ছবি দেখে অবশ্যই বুঝতে পারছেন যে নাইকার শরীরে ওজন বেড়ে গেছে কয়েক গুন। অনেক মোটা দেখতে লাগছে নাইকাকে।

সম্প্রতি এই নাইকাকে চোখে পরে মুম্বাইয়ের এয়ারপোর্টে আর সেখান থেকেই তোলা হয় তার ছবি যেই ছবিতে অভিনেত্রীর বর্তমান অবস্থা আপনারা দেখতেই পাচ্ছে, নিল রঙের জামা পরে আছে।

এতো দিন কোথায় ছিলেন তনুশ্রী দত্ত! তাকে তো আর এখন কোনো সিনেমার নায়িকা হিসেবে ও দেখা যায় না। এমনকি তার বোন ঈশিতা দত্তের বিয়েতে ও তাকে দেখা যায়নি।

জানা গেছে এখন আমেরিকাতেই থাকেন এক সময়ের ভারতীয় সিনেমার হট নায়িকা আর ঝটিকা সফরে মুম্বাই এসেছেন নিজের ব্যাক্তিগত কোনো এক কাজে।

কেনো তিনি এখন আমেরিকাতে স্থায়ী বাসিন্দা হয়ে গেছেন, কেনো ছেড়ে দিয়েছেন রুপালি জগত সেই বেপারে কোনো কিছুই বলেন নি এই অভিনেত্রী। কখনো কি আবার অভিনয় জগতে পা রাখবেন নাকি সেই ব্যাপেরে ও কিছুই জানানি।

২০০৪ সালে বাঙালি তরুণী তনুশ্রী দত্ত “ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স” নির্বাচিত হয়েছিলেন। অভিনয় করেছিলেন গুড বয় ব্যাড বয়, চকোলেট, রকিব: রাইভালস ইন লভ, রিস্ক, স্পিড, ঢোল ইত্যাদি ছবিতে।

তবে এখন তনুশ্রী দত্তের যেই অবস্থা দেখা যাচ্ছে তাতে করে তিনি যদি আবার অভিনয় জগতে ফিরে আসতে চান তাহলে তাকে যে কতোটা পরিশ্রম করতে হবে সেটা হয়তো আপনারা তনুশ্রী দত্তের ছবি দেখেই বুঝতে পারছেন আশা করি।

নায়ক নাইকাদের খবর সবার আগে জানতে প্রতিদিন ভিজিট করুন Bangla News Paper ওয়েবসাইটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *