পবিত্র মাহে রমজান ২০১৮

পবিত্র মাহে রমজান ২০১৮

পবিত্র মাহে রমজান ২০১৮ সালে আমরা পেয়েছি তাই সবার আগে আমরা আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করে “আলহামদুলিল্লাহ” বলবো, কারন এমন অনেকেই আছেন যারা আমাদের সাথে আগের বছর রমজান মাসে ছিলেন কিন্তু এবার রমজানে তারা আর দুনিয়াতে নেই। মহান আল্লাহ আমাদেরকে বাঁচিয়ে রেখেছে রমজান মাস ২০১৮ পর্যন্ত, এটা আমাদের উপর আল্লাহর অশেষ রহমত। চলুন কিছু কথা শুনি রমজান মাস নিয়ে।

পবিত্র মাহে রমজান ২০১৮

পবিত্র মাহে রমজান ২০১৮
পবিত্র মাহে রমজান ২০১৮

আরবি মাস তো অনেক গুলোই আছে। তাহলে রমজান মাসের এতো গুরুত্ব কেনো? জানেন কেনো? কারন এই রমজান মাসে এমন একটা রাত আছে যেই রাতে পবিত্র কোরআন শরীফ নাযিল হয়েছে। আমরা সেই রাতকে শবে কদর এর রাত বা লাইলাতুল কদর এর রাত বলে থাকি।

এখন অবশ্যই বুঝতে পারছেন যে কি কারনে এতো মর্যাদা পেয়েছে পবিত্র রমজান মাস। কিন্তু আমরা কি কখনো ভেবে দেখেছি যে, কোরআন শরীফ নাজিল হয়েছে বলে রমজান মাসের এতো মর্যাদা, তাহলে যারা কোরআন শরীফ পড়েন তাদেরকে আল্লাহ কতো পছন্দ করবেন?

তবে একটা কথা বলে রাখা ভালো। না বুঝে কোরআন শরীফ পড়লে কিন্তু কোনো লাভ হবে না। আল্লাহ কোরআন শরীফে অনেক কিছু বলেছেন, অনেক কিছু হুকুম করেছে, অনেক কাজ করতে বারণ করেছেন। আমরা যদি না বুঝে কোরআন শরীফ পড়ি তাহলে তো আমরা আল্লাহ কি বলেছেন সেটা বুঝতে পারবো না। তাহলে কি কোনো লাভ হবে?

বুঝে কোরআন শরীফ পড়ার কথা এসেছে কারন আমাদের মাতৃভাষা বাংলা আর তাই আমরা আরবি ভাষা জানি না সবাই। তাই আমাদেরকে অবশ্যই কোরআন শরীফ পড়ার সাথে সাথে বাংলা অর্থ ও পড়তে হবে।

এখন প্রায় সব কোরআন শরীফেই বাংলা অর্থ থাকে। তাই অর্থ পড়তে কোনো সমস্যাই হবে না। আর একটা কথা না বললেই নয়, যদি আপনি পুরো কোরআন শরীফ খতম দেন শুধু আরবি পড়ে, আর কেউ মাত্র এক পৃষ্টা পড়লো আরবির সাথে অর্থ সহ, হয়তো আল্লাহ তাকেই বেশি যে অর্থ সহ এক পৃষ্টা পড়েছেন।

এমনটা ভাববেন না যে আপনি শুধু আরবি পড়লে কোনো সাওয়াব পাবেন না। অবশ্যই পাবে, কিন্তু অর্থ বুঝে না পড়লে কি আপনি বুঝতে পারবেন যে আল্লাহ কি বলেছেন কোরআন শরীফে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *