মাইকেল জ্যাকসনের বাবা মারা গেছেন

মাইকেল জ্যাকসনের বাবা মারা গেছেন

মাইকেল জ্যাকসনের বাবা জো জ্যাকসন মারা গেছেন আর এই খবর নিশ্চিত করেছেন জো এর নাতি। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিলো ৮৯ বছর। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জো জ্যাকসনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। চলুন বিস্তারিত জেনে নেই জো জ্যাকসনের জীবনী নিয়ে যিনি ছিলেন বিশ্বের মহা তারকাদের মধ্যে একজনের বাবা।

মাইকেল জ্যাকসনের বাবা মারা গেছেন

মাইকেল জ্যাকসনের বাবা মারা গেছেন
মাইকেল জ্যাকসনের বাবা মারা গেছেন

গতকাল বুধবার ২০১৮ সালের ২৭ জুন মহা তারকা মাইকেল জ্যাকসনের বাবা জো জ্যাকসন অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সময় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

জো জ্যাকসনের ৯ ছেকে মেয়ের মধ্যে একজন ছিলো মাইকেল জ্যাকসন যিনি ছিলেন বিশ্বের সেরা পপ গানের তারকাদের মধ্যে একজন। এছাড়া মাইকেল জ্যাকসনকে পপ গানের সম্রাট ও বলা হয়ে থাকে।

তবে অনেকেই হয়তো জানেন না যে বাবা জো জ্যাকসনের জন্যই মাইকেল জ্যাকসন পৌছাতে পেরেছিলেন বিশ্ববিখ্যাত তারকাদের তালিকায়। পপ গান ছাড়া ও নাচে পারদর্শী ছিলেন মাইকেল জ্যাকসন।

অনেক কষ্ট করে বাবা জো জ্যাকসন মানুষ করেছিলেন তার ৯ ছেলে মেয়েকে। গিটার হাতে নিয়ে জো জ্যাকসন সঙ্গ দিয়েছিলেন মাইকেল জ্যাকসনকে।

“পাপা জো” নামে পরিচিত জো জ্যাকসন আর মাইকেল জ্যাকসন সহ জো জ্যাকসনের মোট ৪ ছেলেমেয়ে স্টেজে গান গাইতো। “জ্যাকসন ফাইভ” নামে তাদের ব্যান্ড ছিলো ১৯৬৯ সালের সবচেয়ে নামীদামী ও চাহিদা সম্পন্ন ব্যান্ড।

জ্যাকসন ফাইভ নাম থেকে পরিবর্তন করে তাদের দল বা ব্যান্ডের নাম রাখা হয় জ্যাকসনস। এই জ্যাকসনসের সবচেয়ে ভালো পারফর্মার ছিলো মাইকেল জ্যাকসন। তাই মাইকেল জ্যকসনের বাবা জো জ্যাকসনের পারফর্মেন্স প্রচার করেছিলেন যার ফলে দুনিয়া জানতে পেরেছিলো মাইকেল জ্যাকসনকে।

মাইকেল জ্যাকসন যখন বেঁচে ছিলো তখন তিনি বার বার স্বীকার করেছিলো যে তার সাফল্যের পেছনে বাবা জো জ্যাকসনের ভূমিকা ছিলো অনেক বেশি।

তবে ১৯৯০ সালে যৌন হেনস্থার মামলা হয় জো জ্যাকসনের বিরুদ্ধে, এরপর থেকে পরিবারে জো জ্যাকসনের গুরুত্ব কমতে থাকে আর হয়তো সম্মানের জায়গাটা ও কমে গিয়েছিলো অনেক। তখন জো জ্যাকসনকে ম্যানেজার পদ থেকে সরিয়ে দেন মাইকেল জ্যাকসন।

তারকা ও তারকাদের পরিবারের খবর সবার আগে পেতে চাইলে প্রতিদিন ভিজিট করুন Bangla News Paper ওয়েবসাইটে, যেখানে আপনি পাচ্ছেন ভিন্নরকম খবর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *